সফল ক্যারিয়ারের জন্য ১০টি পরামর্শ

Career-Success

ক্যারিয়ারে সফলতা আমরা সবাই চাই। কিন্তু ক’জনই বা সফল হন। প্রতিযোগিতার এ যুগে সফল হতে গেলে কিছু কৌশল অবলম্বন করা দরকার। যা আপনাকে যে কোনো কাজে অপ্রতিদ্বন্দ্বী করে তুলবে। সফল ক্যারিয়ারের জন্য ১০টি পরামর্শ নিচে দেয়া হলো। ইন্টারনেট অবলম্বনে লিখেছেন আমাদের স্টাফ রাইটার মিজানুর রহমান শেলী

১. প্রাধান্য ও লক্ষ্য
প্রতিদিন আমাদের অনেক কাজ থাকে। এর মধ্যে প্রধান কাজগুলো বাছাই করুন। এবার গুরুত্বের বিচারে কাজগুলো ক্রমান্বয়ে সাজিয়ে নিন। তারপর কাজগুলো কিভাবে করবেন তার পরিকল্পনা করুন।

একইভাবে দীর্ঘ মেয়াদী ও স্বল্প মেয়াদী কাজের তালিকা করুন। মাঝে মাঝে আপনার এ কাজগুলোর অগ্রগতি যাচাই করুন।

২. দৃষ্টি নিবদ্ধ করা
আপনি শারীরিক ও মানসিকভাবে প্রস্তুত কিনা তা যাচাই করুন। এবার সমস্যা সমাধানের জন্য শারিরিক ও মানসিক দুর্বলতাগুলো ঝেড়ে ফেলুন। এতে আপনি আপনার কাজ ও ক্যরিয়ারের প্রতি ভালোভাবে মনোযোগ দিতে পারবেন।

৩. দক্ষতা বাড়ান
বিভিন্ন চাকরির প্রয়োজনীয় যোগ্যতা আলাদা। তাই আপনার জ্ঞান ও যোগ্যতা নিয়মিত বাড়াতে থাকুন। আপনার জ্ঞান কিভাবে বৃদ্ধি করবেন তার উপায়সমুহ খোঁজ করুন। বিভিন্ন সেমিনার ও কনফারেন্সে অংশ নিন। বই পড়ুন। নিজে নিজে ভাবুন।

৪. সামাজিক হোন
সামাজিক বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশ নিন। এতে নিজেকে সামাজিক মানুষ হিসেবে প্রস্তুত করে তুলতে পারেন। নতুন পরিবেশে নিজেকে মানিয়ে নেয়ার দক্ষতা অর্জন করুন। নতুন মানুষের সাথে পরিচিত হোন। তাদেরকে সম্মান করুন। আলাপে মনযোগী হোন। তাদের কথা শুনুন। তাহলে নতুন কিছু শিখতে পারবেন।

৫. মেধা যাচাই করুন
আপনার সক্ষমতা ও দুর্বলতা খুঁজে বের করুন। এরপর আপনার কাঙ্খিত ক্যারিয়ারের সাথে আপনার সক্ষমতা ও দুর্বলতা মিলিয়ে নিন।

৬. ঝুঁকি নিন
কাজ করলেই কেবল নিজেকে চেনা যায়। নিজের যোগ্যতা ও অযোগ্যতা কাজের মধ্যে প্রকাশ পায়। আরাম-আয়েশে থাকার চেয়ে নতুন ঝুঁকি নিয়ে নতুন কিছু শেখা ও অর্জন করার চেষ্টা করুন। নিয়মিত আপনি যা করেন তা করতে থাকলে আপনি তাই পাবেন যা আপনি আগেও পেয়েছেন। সেজন্য নতুন কিছু করুন।

৭. যোগাযোগ
ফলপ্রসু যোগাযোগের কৌশল শিখে নিন। অন্যদের কথা শুনুন ফলে আপনি জানতে পাবেন কিভাবে মানুষ সুন্দর করে কথা বলে, কাজ করে এবং কাজের স্বীকৃতি দেয়। আবার কিছু বুঝতে না পারলে তা অন্যের কাছ থেকে প্রশ্ন করে জেনে নিন।

৮. অন্যের সমালোচনা বন্ধ করুন
সহকর্মী ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে নিয়ে কর্মস্থলে সমালোচনা বা গীবত চর্চা করবেন না। প্রতিষ্ঠান ও কাজের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন। এতে প্রতিষ্ঠানের সবার কাছে নিজের অবস্থান তৈরি হবে। সবার আস্থা অর্জনে সক্ষম হবেন। যা খুলে দেবে আপনার উন্নতির পথ।

৯. ধৈর্য্য ধরুন
ধৈর্য্যের সাথে সমস্যা সমাধান করুন। আগের থেকে ভালো কিছু করার চেষ্টা করুন। নিজের ভালোলাগার কাজগুলো সৃজনশীলতার সাথে করুন। এতে দিনে দিনে আপনার সৃজনশীলতা আরো বাড়বে।

১০. প্রিয় কাজটি খুঁজে বের করুন
নিজের কাজে হতাশা আসলে কাজের মধ্যে ভালোলাগার বিষয়টি খুঁজে বের করুন। বিফলতার পরে নতুন ভালো কিছু করার সম্ভাবনা আসতে পারে। সেই কাজটি খুঁজে বের করুন।

দার্শনিক কনফুসিয়াসের ভাষায়, ‘তোমার প্রিয় কাজটি খুঁজে বের কর, তোমাকে আর কোনোদিন কাজ করতে হবে না’।

About সম্পাদক

মো: বাকীবিল্লাহ। গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার পাথরঘাটাতে। থাকেন ঢাকার সাভারে। পড়াশোনা করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে -- সরকার ও রাজনীতি বিভাগ থেকে অনার্স, মাস্টার্স । পরে এলএলবি করেছেন একটা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। তাঁর লেখালেখি মূলত: ক্যারিয়ার বিষয়ে। তারই সূত্র ধরে সম্পাদনা ও প্রকাশ করছেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্স নামে এই ম্যাগাজিনটি। এছাড়া জিটিএফসি গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে কর্মরত। ভিডিও তৈরি ও সম্পাদনা, ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক ডিজাইন এবং পাবলিক লেকচারের প্রতি আগ্রহ তাঁর।

View all posts by সম্পাদক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *