ইন্টারভিউ ভীতি কাটাতে…

0
163

ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্স : চাকরির জন্য ইন্টারভিউ বা ভাইভা একটি গুরুত্বপূর্ণ পর্ব। প্রায় সব ধরনের চাকরিতেই এ পর্ব অত্রিক্রম করতে হয়। তবে ইন্টারভিউয়ের ডাক পড়লে অনেকে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। কী প্রশ্ন হবে, কারা বোর্ডে থাকবেন, কেমন আচরণ করবেন ইত্যাদি চিন্তায় ঘাম ঝরে অনেকের। আসুন জেনে নিই কীভাবে ইন্টারভিউ ভীতি কাটাবেন।

প্রস্তুত থাকুন
লিখিত পরীক্ষা পাসের পর ইন্টারভিউতে ডাক পেয়েছেন। এখন স্বপ্নের চাকরি থেকে আর মাত্র এক ধাপ দূরে। তাই সিরিয়াস হোন। জরুরি যে পড়াশোনা— অন্তত সেটুকু করে যান। ইন্টারভিউ কিন্তু শুধুই ব্যক্তিত্বের পরীক্ষা নয়। ব্যক্তিত্বের সঙ্গে বিষয়ভিত্তিক প্রশ্নের মুখোমুখি হতেই পারেন।

জোরে নিশ্বাস নিন
ব্রিদিং এক্সারসাইজ খুবই গুরুত্বেপূর্ণ। ইন্টারভিউ বোর্ডে ঢোকার আগে বড় করে শ্বাস নিন। শ্বাস ছাড়ুন অল্প অল্প করে। বার কয়েক এমন করুন। এতে স্ট্রেস কমে। বাড়ে আত্মবিশ্বাস। উদ্বেগ কমিয়ে শান্ত রাখে মন ও বুদ্ধিকে।

পিঠ সোজা, চোখে চোখ
আপনার বডি ল্যাঙ্গুয়েজই ব্যক্তিত্বের পরিচায়ক। তাই পরীক্ষা গ্রহণকারীর সামনে এমনভাবে বসুন, যাতে কোনো জড়তা ধরা না পড়ে। প্রশ্নের উত্তর দিন চোখে চোখ রেখে, হাসি মুখে। ‘আই কনট্যাক্ট’-এর প্রভাব কিন্তু অনেক। এতে ধরা পড়ে একজনের মানসিকতা ও আত্মবিশ্বাস।

হাসিমুখে থাকুন
কথায় বলে, হাসিমুখের জয় সবখানে। পরীক্ষকদের সামনে রিল্যাক্স মুডে থাকুন। উত্তর ভালো দিন বা খারাপ— আপনার টেনশন যেন ধরা না পড়ে। বরং হাসিমুখে শুভেচ্ছা বিনিময়ের মধ্যে ইন্টারভিউ শেষ করুন। আর পুরোটা সময় মুখমণ্ডল রাখুন উজ্জ্বল।

নিজের ওপর আস্থা রাখুন
ইন্টারভিউ দিতে এসে অনেকেই অন্য পরীক্ষার্থীর কথাবার্তা বা প্রস্তুতি দেখে ঘাবড়ে যান। একজন যতই জানেন না কেন, তার পক্ষে সবকিছু জানা সম্ভব না। কাজেই যেটুকু আপনি জানেন, তার উপরই আস্থা রাখুন। এ সব নিয়ে বেশি মাথা ঘামালে, তার ছাপ পড়বে আপনার পারফরম্যান্সে।

নিদ্বির্ধায় জানি না বলুন
অজানা প্রশ্নের উত্তরে ‘জানি না’ বা ‘জানা নেই’ বলুন। সব জানা কারো পক্ষেই সম্ভব নয়। সেটা আপনার পরীক্ষকেরাও জানেন। কাজেই ভুল উত্তর বা আমতা আমতা করে উত্তর দিয়ে ব্যক্তিত্ব না খুইয়ে স্পষ্ট বলুন ‘জানা নেই’। এতে আপনার সততা আর স্মার্টনেসে আকৃষ্ট হবেন পরীক্ষকেরা।

ইতিবাচক থাকুন
যে কোনো প্রশ্ন বা পরিস্থিতিতে ইতিবাচক আচরণ বজায় রাখুন। আপনাকে যাচাই করতে পরীক্ষকেরা নানা রকম পরিস্থিতি তৈরি করবেন, আসতে পারে স্নায়ুর চাপও। মাথা ঠাণ্ডা রেখে মুখে হাসি নিয়ে কথা বলুন। চাপের মুখে কখনো মেজাজ হারাবেন না।

বিশেষ দ্রষ্টব্য
ইন্টারভিউতে ঢোকার আগেই মাথায় রাখুন দরজা ‘পুল’ করে ঢুকলেন নাকি ‘পুশ’ করে? বেরোনোর সময়ও মাথায় রাখুন সেটা। অনেক ক্ষেত্রে স্মৃতিশক্তি ও মানসিক স্থিরতা যাচাই করতে এই বিষয়টি নজরে রাখেন পরীক্ষকেরা।

ঘোষণা

আপনিও লিখুন


প্রিয় পাঠক, আপনিও লিখতে পারেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্সে। শিক্ষা, ক্যারিয়ার বা পেশা সম্পর্কে যে কোনো লেখা আমাদের কাছে পাঠিয়ে দিন। পাঠাতে পারেন অনুবাদ লেখাও। তবে সেক্ষেত্রে মূল উৎসটি অবশ্যই উল্লেখ করুন লেখার শেষে। লেখা পাঠাতে পারেন ইমেইলে অথবা ফেসবুক ইনবক্সে। ইমেইল : [email protected]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here