ব্যাংক ব্যবস্থাপনায় পেশাদার ডিগ্রি

দেশীয় ব্যাংকারদের ব্যবস্থাপনায় দক্ষ করে তোলার জন্য বিভিন্ন মেয়াদি কোর্স পরিচালনা করছে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট বা বিআইবিএম। ব্যাংকার হিসেবে যারা ক্যারিয়ার গড়তে চান, তাদের জন্য দুই বছর মেয়াদি পেশাগত কোর্স মাস্টার্স ইন ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট বা এমবিএম ডিগ্রি নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। চাকরিরত প্রার্থীদের জন্য ২০০৬ সাল থেকে চালু হয়েছে সান্ধ্যকালীন বা ইভনিং এমবিএম। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ঢাকা স্কুল অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট বা ডিএসএমের আওতায় বিআইবিএম এসব পেশাদার পরিচালনা করে। এ ছাড়া পেশাগত উৎকর্ষ সাধন, নতুন ব্যাংকিং কৌশল আয়ত্ত ও অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করার জন্য ব্যাংকারদের স্বল্পমেয়াদি বিভিন্ন প্রশ্ন কোর্স ও সেমিনারের আয়োজন করে বিআইবিএম।

এমবিএম আবেদন প্রক্রিয়া

সাধারণত বছরের সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসের দিকে এমবিএম এবং মার্চ-এপ্রিল মাসের দিকে ইভনিং এমমবিএমের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। আগ্রহীরা বিআইবিএমের ডিএসবিএম অফিস থেকে সরাসরি বা ওয়েবসাইট থেকে আবেদন সংগ্রহ করে নির্ধারিত ফিসহ জমা দিতে পারেন। যেকোনো বিষয়ে কমপক্ষে স্নাতক বা ১৬ বছরের শিক্ষা সম্পন্নকারী আবেদন করতে পারবেন। শিক্ষাজীবনের কমপক্ষে একটিতে প্রথম শ্রেণি থাকা আবশ্যক। তবে কোনোটিতেই তৃতীয় শ্রেণি থাকা চলবে না। গ্রেডভিত্তিক ফলাফলধারীদের ক্ষেত্রে ৪.০০-এর মধ্যে সিজিপিএ ৩.৫ এবং ৫ মধ্যে ৪ প্রথম শ্রেণি হিসেবে বিবেচিত হবে।

পরীক্ষা ও বাছাই পদ্ধতি

ন্যূনতম শর্তপূরণকারীদের মধ্য থেকে এমসিকিউ, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তির জন্য চূড়ান্ত তালিকা প্রস্তুত করা হয়। শুরুতে দেড় ঘণ্টাব্যাপী ১০০ নম্বরের এমসিকিউ, তার পরপরই এক ঘণ্টার লিখিত পরীক্ষা দিতে হয়। এসসিকিউ পরীক্ষায় ইংরেজি দক্ষতা ৪০, ম্যাথমেটিকস অ্যান্ড এনালাইটিকাল অ্যাবিলিটি ৫০ এবং সাধারণ জ্ঞান থেকে ১০ নম্বরের প্রশ্ন করা হয়। মোট ৫০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষার ক্ষেত্রে প্রবন্ধ রচনা, অনুবাদ, রিডিং কমপ্রিহেনশন এবং আরগুমেন্ট থেকে প্রশ্ন করা হয়। এমসিকিউ ও লিখিত পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তিতে সাধারণত ২০০ জনকে সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকা হয়। ১০ নম্বরের সাক্ষাৎকার পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মধ্যে থেকে নম্বরের ভিত্তিতে প্রতি ব্যাচে ৫০-৬০ জনকে ভর্তির জন্য মনোনীত করা হয়।

পড়াশোনা ও পরিবেশ

বিভিন্নপ্রতিষ্ঠান ও বিষয় থেকে স্নাতক ডিগ্রিধারীরা এমবিএম কোর্সে ভর্তি হয় বিধায় ব্যাংকিং ব্যবস্থাপনার দরকারি খুঁটিনাটি বিষয় বিবেচনা করেই সিলেবাস প্রণয়ন করা হয়। রাজধানীর মিরপুর ২-এ স্থাপিত বিআইবিএমে রয়েছে নিরিবিলি পরিবেশ, আবাসন সুবিধা, কম্পিউার ল্যাব, ২৬০০০ বই বিশিষ্ট অটোমেটেড লাইব্রেরি, ক্যানটিন, ক্রীড়া রুম, ব্যায়ামাগার ও খেলার মাঠ রয়েছে, যা পড়াশোনার পাশাপাশি ব্যাংকারদের মনোদৈহিক বিকাশে সহায়ক। ব্যাংকিং খাতে পেশাদারদের জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত দেশের সব ব্যাংকের অংশগ্রহণে পরিচালিত ব্যাংক ব্যবস্থাপনার একমাত্র বিশেষায়িত প্রতিষ্ঠান বিআইবিএম শুরু থেকে মান ও সুনাম ধরে রেখেছে।

আরো জানতে দেখুন www.bibm.org.bd

About সম্পাদক

মো: বাকীবিল্লাহ। গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার পাথরঘাটাতে। থাকেন ঢাকার মতিঝিলে। পড়াশোনা করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে -- সরকার ও রাজনীতি বিভাগ থেকে অনার্স, মাস্টার্স । পরে এলএলবি করেছেন একটা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। তাঁর লেখালেখি মূলত: ক্যারিয়ার বিষয়ে। তারই সূত্র ধরে সম্পাদনা করছেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্স নামে এই ম্যাগাজিনটি। এছাড়া জিটিএফসি গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে কর্মরত।

View all posts by সম্পাদক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *