বিসিএস : লিখিত পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ার ১০ কারণ

0
144

ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্স : দ্বীপখ্যাত ভোলা জেলার কৃতী সন্তান শাহ মো. সজীব। বাবা মো. মোশারেফ হোসেন ছিলেন একজন উচ্চপদস্থ সেনা কর্মকর্তা। স্বপ্ন ছিল ছেলেকেও সরকারি কর্মকর্তা বানাবেন। তাই তো বুকভরা আশা নিয়ে স্কুল ও কলেজের পড়াশোনা শেষ করে আদরের সন্তানকে ভর্তি করেন প্রাচ্যের অক্সফোর্ডখ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগে। বাবার স্বপ্ন আর নিজের অদম্য শানিত প্রতিভার পরিচয় দেন ৩৪তম বিসিএস পরীক্ষায় প্রশাসন ক্যাডারে ২য় স্থান অধিকারের মধ্য দিয়ে। তিনি জানালেন বিসিএসের লিখিত পরীক্ষায় ফেল বা কম নম্বর পাওয়ার দশটি কারণ।
সেগুলো হচ্ছে-
১. তথ্য কম থাকা বা না থাকা
২. ভুল তথ্য থাকা
৩. বানান ও বাক্য ভুল এবং যতি চিহ্নের সঠিক ব্যবহার না থাকা
৪. লেখায় অতিরিক্ত কাটাকাটি
৫. হাতের লেখা অতিরিক্ত বড় বা ছোট
৬. একই কথার পুনরাবৃত্তি
৭. রেফারেন্স না থাকা বা কম থাকা অথবা ভুল থাকা
৮. নম্বরের সঙ্গে উত্তরের পরিধির সমন্বয় না থাকা
৯. আপডেট তথ্য না থাকা
১০. অপ্রাসঙ্গিক বিষয় বেশি

তাই শুধু পড়লেই হবে না, সতর্কভাবে তথ্য সংগ্রহ করার মানস থাকতে হবে। একটু চিন্তা করলেই বোঝা যাবে, এই দশটি লিখিত পরীক্ষায় ভালো নম্বর পাওয়ারও উপায়। শুধু উল্টো করে নিন।

মনে রাখবেন লিখিত পরীক্ষাই আপনার স্বপ্ন পূরণে সবচেয়ে বেশি অবদান রাখতে পারে। তাই সঠিকভাবে প্রস্তুতি নিন এবং উপস্থাপন করুন। তাতেই দেখা হবে বিজয়ের।

ঘোষণা

আপনিও লিখুন


প্রিয় পাঠক, আপনিও লিখতে পারেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্সে। শিক্ষা, ক্যারিয়ার বা পেশা সম্পর্কে যে কোনো লেখা আমাদের কাছে পাঠিয়ে দিন। পাঠাতে পারেন অনুবাদ লেখাও। তবে সেক্ষেত্রে মূল উৎসটি অবশ্যই উল্লেখ করুন লেখার শেষে। লেখা পাঠাতে পারেন ইমেইলে অথবা ফেসবুক ইনবক্সে। ইমেইল : [email protected]
Previous articleঢাবিতে মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনায় মাস্টার্স
Next article১৩০ জনকে নন-ক্যাডারে নিয়োগের সুপারিশ পিএসসির
গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার পাথরঘাটাতে। থাকেন ঢাকার সাভারে। পড়াশোনা করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে- সরকার ও রাজনীতি বিভাগ থেকে অনার্স, মাস্টার্স । পরে এলএলবি করেছেন একটা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। তাঁর লেখালেখি মূলত: ক্যারিয়ার বিষয়ে। তারই সূত্র ধরে সম্পাদনা ও প্রকাশ করছেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্স নামে এই ম্যাগাজিনটি। এছাড়া জিটিএফসি গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে কর্মরত। ভিডিও তৈরি ও সম্পাদনা, ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক ডিজাইন এবং পাবলিক লেকচারের প্রতি আগ্রহ তাঁর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here