স্কলারশিপ নিয়ে চীনে পড়াশোনা, সাথে ৪৮ লাখ টাকা

0
206

অনার্স, মাস্টার্স, পিএইচডি অথবা নন-ডিগ্রি! যেকোন লেভেলের শিক্ষার্থীর জন্য চীন সরকার নিয়ে এল স্কলারশিপ। সেই সাথে মোটা অঙ্কের টাকাসহ পাবেন থাকা, খাওয়ার সুবিধা। অনার্সের ক্ষেত্রে ৪-৭ বছরের কোর্স, মাস্টার্সের ক্ষেত্রে ২-৫ বছরের কোর্স, পিএইচডির ক্ষেত্রে ৩-৬ বছরের কোর্স, জেনারেল স্কলার এবং সিনিয়র স্কলারের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ২ বছরের কোর্স প্রযোজ্য এ স্কলারশিপের ক্ষেত্রে।

যে যে বিষয় প্রযোজ্য:
চীনের ২৭৯টি নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন বিষয়ে কোর্স করা যাবে। Science, Engineering, Agriculture, Medicine, Law, Economics, Management, Education, Liberal Arts, Philosophy, History এবং Fine Arts এর উপর ডিগ্রি নেয়া যাবে।

যোগ্যতা:
– বিশেষ কোন যোগ্যতা লাগবেনা
– উল্লিখিত বিষয়সমূহের মধ্যেই পড়তে রাজি থাকতে হবে

চীন সরকার স্কলারশিপে সাতটি ক্যাটাগরি আওতাভুক্ত:
– বাইলেটারাল প্রোগ্রাম
– চাইনিজ বিশ্ববিদ্যালয় প্রোগ্রাম
– গ্রেট ওয়াল প্রোগ্রাম
– ইইউ প্রোগ্রাম
– এইউএন প্রোগ্রাম
– পিআইএফ প্রোগ্রাম
– ডাব্লিউএমও প্রোগ্রাম

সুবিধাসমূহ:
– টিউশন ফি পুরো ফ্রি
– সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয় থাকার ব্যবস্থা করবে (ডরমিটরি) * বিশ্ববিদ্যালয়ের তত্ত্বাবধানে যদি শিক্ষার্থী থাকতে চায় তাহলে ওই বিশ্ববিদ্যালয় ডরমিটরিতে তার থাকার ব্যবস্থা করা হবে (দুইজনের রুম সাধারণত); আর যদি বিশ্ববিদ্যালয় তাকে বাইরে থাকার অনুমতি দেয় তাহলে বাইরে থাকার জন্যও খরচ বহন করবে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়।
– অনার্স/ মাস্টার্স/ জেনারেল স্কলারের জন্য মাসিক ৭০০ চাইনিস ইউয়ান (৮৭১৭ টাকা)
– ডক্টরাল/ সিনিয়র স্কলারের জন্য মাসিক ১০০০ চাইনিস ইউয়ান (১২৪৫২ টাকা) বৃত্তি: (মাসিক)
– আন্ডারগ্রেজুয়েট শিক্ষার্থী : ২৫০০ চাইনিস ইউয়ান (৩১১৩২ টাকা)
– মাস্টার্স/ জেনারেল স্কলারের শিক্ষার্থী : ৩০০০ চাইনিস ইউয়ান (৩৭৩৫৮ টাকা)
– ডক্টরাল/ সিনিয়র স্কলারের শিক্ষার্থী : ৩৫০০ চাইনিস ইউয়ান (৪৩৫৮৫ টাকা)

বৃত্তি: (মাসিক)
– আন্ডারগ্রেজুয়েট শিক্ষার্থী : ২৫০০ চাইনিস ইউয়ান (৩১১৩২ টাকা)
– মাস্টার্স/ জেনারেল স্কলারের শিক্ষার্থী : ৩০০০ চাইনিস ইউয়ান (৩৭৩৫৮ টাকা)
– ডক্টরাল/ সিনিয়র স্কলারের শিক্ষার্থী : ৩৫০০ চাইনিস ইউয়ান (৪৩৫৮৫ টাকা)

যেভাবে আবেদন করতে হবে:
– সংশ্লিষ্ট চীনা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে খোঁজ নিয়ে শেষ তারিখের আগেই আবেদন ফর্ম জমা দিতে হবে
– CSC online application system লিংকটিতে ক্লিক করে আবেদনপত্রটি নামিয়ে হার্ড কপিটি পূরণ করতে হবে
– আবেদনপত্র গ্রহণ করার এজেন্সিতে আবেদনপত্রটি নির্ধারিত তারিখের আগেই সাবমিট করুন (প্রি-এডমিশন লেটার থাকলে তা সংযুক্ত করুন)

আবেদনের শেষ তারিখ
জানুয়ারি থেকে শুরু হয়ে এপ্রিলের মধ্যে নির্ধারিত তারিখ পড়ে। এজেন্সিতে যোগাযোগ করে সেই তারিখের আগেই আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। অসংখ্য সুযোগ সুবিধা সম্বলিত এই স্কলারশিপটি বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য সত্যই লোভনীয় একটি অফার।

তথ্য সূত্র: দেশে বিদেশে

ঘোষণা

আপনিও লিখুন


প্রিয় পাঠক, আপনিও লিখতে পারেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্সে। শিক্ষা, ক্যারিয়ার বা পেশা সম্পর্কে যে কোনো লেখা আমাদের কাছে পাঠিয়ে দিন। পাঠাতে পারেন অনুবাদ লেখাও। তবে সেক্ষেত্রে মূল উৎসটি অবশ্যই উল্লেখ করুন লেখার শেষে। লেখা পাঠাতে পারেন ইমেইলে অথবা ফেসবুক ইনবক্সে। ইমেইল : [email protected]

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here