ব্যাংকিং বিষয়ে উচ্চশিক্ষা

0
62

ব্যাংকিং পেশায় নিয়োজিত এবং এ খাতে চাকরি পেতে আগ্রহী প্রার্থীদের সামনে এখন ব্যাংকিং বিষয়ে উচ্চশিক্ষার একটি ভালো সুযোগ আছে। আর সুযোগটি তৈরি করে দিয়েছে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম)। প্রতিষ্ঠানটি সম্প্রতি বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় সন্ধ্যাকালীন মাস্টার্স অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টে (ইএমবিএম) স্নাতকোত্তর কোর্সে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এ প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হতে আগ্রহী প্রার্থীরা আগামী ১ মে পর্যন্ত আবেদনপত্র জমা দিতে পারবেন।

ভর্তির সুযোগ 

সময়ের প্রয়োজনে ব্যাংকগুলোর ব্যাপক চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে বিআইবিএম ১৯৯৭ সালে ব্যাংকিং বিষয়ে মাস্টার্স অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (এমবিএম) নামে স্নাতকোত্তর কোর্স চালু করে। কোর্সগুলো হলো, এমবিএম ও সন্ধ্যাকালীন এমবিএম (২০০৬)। এমবিএম কোর্স দুই বছর আর সন্ধ্যাকালীন এমবিএম (ইএমবিএম) কোর্সটি দুই বছর আট মাস মেয়াদি। একজন প্রার্থীকে ছয়টি সেমিস্টারে মোট ২৪টি বিষয় পড়তে হয়। প্রতিটি সেমিস্টার চার মাস মেয়াদি। তবে ইএমবিএম প্রার্থীদের ২৪টি বিষয় আটটি সেমিস্টারে পড়তে হবে। এ ছাড়া ব্যাংকের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তাদের জন্য স্বল্পমেয়াদি কোর্স করারও সুযোগ আছে বিআইবিএমে। যেমন, প্রশিক্ষণ কোর্স, প্রশিক্ষণ কর্মশালা, গবেষণা কর্মশালা, রিভিউ কর্মশালা। কোর্সগুলো ২ থেকে ১০ দিনব্যাপী হয়ে থাকে।

যেসব বিষয় পড়ানো হয়

বিআইবিএমে স্নাতকোত্তর কোর্সে মৌলিক অর্থনীতি, ব্যবসায় যোগাযোগ, সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা, ব্যাংকিং আইন ও প্রয়োগ, ঋণ পরিচালনা ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা, প্রতিবেদন তৈরি, বিপণন ব্যবস্থাপনা, ব্যবসায় গণিত, উচ্চতর হিসাববিজ্ঞান, ব্যবসায় পরিসংখ্যান, ব্যবস্থাপনা, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ও বৈদেশিক বিনিময়, আন্ত:নিয়ন্ত্রণ কৌশল ও ব্যাংক সুপারভিশন, ই-কমার্স, ই-ব্যাংকিং, তথ্যপ্রযুক্তিসহ ব্যাংকিং-সংক্রান্ত অন্যান্য বিষয় পড়ানো হয়। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠানটি স্বল্পমেয়াদি কোর্সে ঋণ ব্যবস্থাপনা, কৃষি ও গ্রামীণ ব্যাংকিং, মানবসমপদ ব্যবস্থাপনা, ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা, ইসলামি ব্যাংকিং ও অর্থায়ন, অর্থ বিশ্লেষণ, উদ্যোক্তা-উন্নয়ন ও এসএমই ব্যবসা, শাখা ব্যবস্থাপনা, বিপণন, ব্র্যান্ডিং ও রিলেশনশিপ ব্যাংকিং, নেতৃত্ব, দল গঠন ও আলোচনা দক্ষতা, সাধারণ ব্যাংকিং, ঋণ আইন ও নীতি, বিনিয়োগ ব্যাংকিং প্রভৃতি বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে।

ভর্তির যোগ্যতা

আগ্রহী প্রার্থীকে কোনো বিষয়ে ন্যূনতম স্নাতক ডিগ্রিধারী হতে হবে। কোনো পরীক্ষায় তৃতীয় বিভাগ গ্রহণযোগ্য নয়। নিয়মিত এমবিএম কোর্সে ৬০ জন ও সন্ধ্যাকালীন এমবিএম কোর্সে ৫০ জন প্রশিক্ষণার্থীকে ভর্তির সুযোগ দেওয়া হয়। ভর্তির ক্ষেত্রে সাধারণত পেশাজীবী প্রার্থীদের অগ্রাধিকার রয়েছে।

ভর্তি প্রক্রিয়া

বিআইবিএম কার্যালয় থেকে ৫০০ টাকার বিনিময়ে আবেদনপত্র সংগ্রহ করে ৬ মে’র মধ্যে জমা দেওয়া যাবে। ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১১ মে।

ভর্তি পরীক্ষার বিষয়

দুই ঘণ্টাব্যাপী ১০০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক ও লিখিত পরীক্ষা হবে। এর মধ্যে ইংরেজি ৫০, গণিত ৩০ ও সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে ২০ নম্বরের প্রশ্ন থাকে। এ ছাড়া রয়েছে ১০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা।

খরচাপাতি

সদস্য ব্যাংকগুলোর পেশাজীবীদের জন্য পরিচালিত সংক্ষিপ্ত কোর্সের বিপরীতে তেমন একটা প্রশিক্ষণ খরচ নেওয়া হয় না। তবে যারা এমবিএম বা ইএমবিএম কোর্সে ভর্তি হবেন, তাঁদের পুরো কোর্সের জন্য প্রায় এক লাখ ৮০ হাজার টাকা টিউশন ফি বাবদ দিতে হবে। পুরো টিউশন ফি একবারে পরিশোধ না করে প্রতি টার্মভিত্তিক দেওয়ার সুযোগ রয়েছে।

যোগাযোগের ঠিকানা

বিআইবিএম, প্লট-৪, সেকশন-২, মিরপুর, ঢাকা-১২১৬। ফোন: ৯০০৩০৩১-৫। ওয়েবসাইট: www.bibm.org.bd

ঘোষণা

আপনিও লিখুন


প্রিয় পাঠক, আপনিও লিখতে পারেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্সে। শিক্ষা, ক্যারিয়ার বা পেশা সম্পর্কে যে কোনো লেখা আমাদের কাছে পাঠিয়ে দিন। পাঠাতে পারেন অনুবাদ লেখাও। তবে সেক্ষেত্রে মূল উৎসটি অবশ্যই উল্লেখ করুন লেখার শেষে। লেখা পাঠাতে পারেন ইমেইলে অথবা ফেসবুক ইনবক্সে। ইমেইল : [email protected]
Previous articleকানাডায় উচ্চশিক্ষা
Next articleপ্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ
Avatar
গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার পাথরঘাটাতে। থাকেন ঢাকার সাভারে। পড়াশোনা করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে- সরকার ও রাজনীতি বিভাগ থেকে অনার্স, মাস্টার্স । পরে এলএলবি করেছেন একটা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। তাঁর লেখালেখি মূলত: ক্যারিয়ার বিষয়ে। তারই সূত্র ধরে সম্পাদনা ও প্রকাশ করছেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্স নামে এই ম্যাগাজিনটি। এছাড়া জিটিএফসি গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে কর্মরত। ভিডিও তৈরি ও সম্পাদনা, ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক ডিজাইন এবং পাবলিক লেকচারের প্রতি আগ্রহ তাঁর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here