নিজের প্রতি ভালোবাসা : সফল ও সুন্দর জীবনের চাবিকাঠি

মো. বাকীবিল্লাহ

আমাদের জীবনে আমরা অনেক জিনিসকেই ভালোবাসি, হোক সেটা ব্যক্তি কিংবা বস্তু। কিন্তু একটু ভেবে দেখুন তো আপনি কোন জিনিসটিকে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসেন? হয়তো বলবেন, বন্ধু-বান্ধবী, পিতামাতা, স্বামী/স্ত্রী ইত্যাদি ইত্যাদি। আমার এ প্রশ্নের জবাবে প্রত্যেকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে ভিন্ন ভিন্ন উত্তর দিয়ে তার কারণও ব্যাখ্যা করতে পারবেন। তবে ব্যক্তিগত উন্নয়নের দৃষ্টিভঙ্গিতে আমি বলবো- আমরা পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসি নিজেকে। কোনো এক মনিষী বলেছিলেন- ‘যদি আমরা নিজেদেরকে ভালো না বাসি তবে অন্য কেউ আমাদের ভালোবাসবে না’।
তবে বাস্তবতা হচ্ছে, আমরা অনেক কারণেই নিজেরা নিজেদেরকে ভালোবাসতে সক্ষম হই না। ফলে অনেক সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও জীবনে উন্নতি লাভ করতে আমরা ব্যর্থ হই।
যাই হোক, এবার তাহলে আসুন জেনে নেই নিজেকে ভালোবাসার কয়েকটি গোপনসূত্র।

নিজেকে ভালোবাসার ৫টি পদ্ধতি

১. নিজেকে অভিনন্দন জানান এবং পুরস্কৃত করুন
আমরা অনেক সময় বিভিন্ন ক্ষেত্রে সফলতা অর্জন করি। সেটা হতে পারে ছোট কিংবা বড়। এ সময় আমাদের উচিত নিজেদেরকে অভিনন্দন জানিয়ে পুরস্কৃত করা। এবং এ পুরস্কারটি হওয়া উচিত উচ্চ মানের। ধরুন, আপনি কোনো ক্ষেত্রে সফলতার কারণে সিলভার কিংবা ব্রোঞ্জ মেডেল পেলেন। এক্ষেত্রে আপনি নিজেকে ব্রোঞ্জ বা সিলভার মেডেল না দিয়ে সোনার মেডেল প্রদান করুন। এভাবে নিজের সফলতায় আপনি নিজের কাছ থেকে সর্বোচ্চ সম্মানটিই গ্রহণ করুন।

২. নিজের যা আছে তা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকুন
পৃথিবীতে অনেক লোক আছেন যারা সারা দিন নিজের যেটা নেই কিংবা স্বীয় দুর্বলতা অথবা যা তিনি করতে পারেন না সেটা নিয়েই বেশি চিন্তা করে অধিকাংশ সময় নষ্ট করে ফেলেন। ফলে নিজের যা আছে তারও সঠিক ব্যবহার করতে পারেন না।
অপরদিকে এমন লোকও আছেন যারা নিজের যেসব উপায় উপকরণ কিংবা গুণাবলী আছে তার যথাযথ ব্যবহারের মাধ্যমে জীবনে সফলতা অর্জন করেন। সুতরাং আপনি প্রথম দলের অন্তর্ভুক্ত না হয়ে শেষোক্ত দলের অন্তর্ভুক্ত হন।

৩. অপ্রয়োজনীয়ভাবে নিজেকে অন্যের সাথে তুলনা করবেন না
একটি বিষয় সব সময় মনে রাখবেন যে, আপনি স্বীয় ক্ষেত্রে অনন্য। অনেক লোক আছেন যার তার চেয়ে অনেক উচ্চ পর্যায়ের লোকের সাথে নিজেকে তুলনা করেন। আর ভাবেন- ওই লোক কত সুন্দরভাবে কাজ করতে পারেন কিংবা অনেক বেশি জানেন; আমি তার মতো কোনো দিনই পারব না ইত্যাদি ইত্যাদি। আপনি কখনো এসব লোকদের মতো হবেন না। কেননা এভাবে ভাবলে আপনি আপনার নিজস্ব দক্ষতাকেই ছোট করবেন। সুতরাং বাস্তববাদী হোন এবং এধরনের অপ্রয়োজনীয় তুলনা থেকে নিজেকে দূরে রাখুন।

৪. নিজের যত্ন নিন
জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমরা ব্যর্থতাসহ নানা সমস্যার মুখোমুখি হই। এ রকম পরিস্থিতিতে আমাদের উচিত নিজেদের প্রতি আরো বেশি যত্নবান হওয়া এবং নিজেকে বেশি বেশি ভালোবাসা। এমনকি পৃথিবীর ৭শ’ কোটি লোক আপনাকে ঘৃণা করলেও আপনার উচিত নিজেকে ভালোবাসা। একটি কথা মনে রাখবেন, নিজেকে যত বেশি ভালোবাসবেন, আপনি তত বেশি সুখী ও সফল ব্যক্তিত্বে পরিণত হবেন।  তেমনিভাবে নিজেকে মানসিক ও শারীরিকভাবে সুন্দর অবস্থায় রাখুন। নতুবা রাগ, ক্রোধ ও দুশ্চিন্তার মত নেতিবাচক আবেগগুলো আগুনের ন্যায় ছড়িয়ে পড়ে অল্প সময়ের মধ্যেই আপনার জীবনকে ধ্বংস করে দেবে।

৫. নিজেকে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করুন
আরেকটি বিষয় সবারই মনে রাখা উচিত যে- আপনার কর্মকাণ্ড, জীবনপদ্ধতি, মতামত ইত্যাদি আপনার মনের গভীরে লালিত চিন্তা ও বিশ্বাসের প্রতিফলন ঘটায়। সুতরাং নিজের মনে ইতিবাচক চিন্তা লালন করুন এবং নিজেকে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করুন। আপনি যদি জীবনকে ইতিবাচকভাবে দেখেন তবে সবকিছুই সঠিকভাবে হবে নতুবা সব কিছুই দেখতে পাবেন আপনার চিন্তা ও মতের বিপরীত।

About সম্পাদক

মো: বাকীবিল্লাহ। গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার পাথরঘাটাতে। থাকেন ঢাকার সাভারে। পড়াশোনা করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে -- সরকার ও রাজনীতি বিভাগ থেকে অনার্স, মাস্টার্স । পরে এলএলবি করেছেন একটা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। তাঁর লেখালেখি মূলত: ক্যারিয়ার বিষয়ে। তারই সূত্র ধরে সম্পাদনা ও প্রকাশ করছেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্স নামে এই ম্যাগাজিনটি। এছাড়া জিটিএফসি গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে কর্মরত। ভিডিও তৈরি ও সম্পাদনা, ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক ডিজাইন এবং পাবলিক লেকচারের প্রতি আগ্রহ তাঁর।

View all posts by সম্পাদক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *