পড়াশোনায় মন বসাবেন যেভাবে

0
325

এস এম মাহফুজ

মুরব্বি, শিক্ষক, অভিভাবক সবাই একটা কথা বলেন ‘মন দিয়ে পড়। মনের কলিতেও তারই প্রতিধ্বনি হয়েছে’ মন দিয়ে লেখাপড়া, মন দিয়ে খেলা, সব কাজে মন দিতে করো নাকো হেলা। আসলে এই মনই সকল কাজের মূল। যেখানে যে কাজে মন নেই সে কাজটাই মাটি। ধরুন পড়ার টেবিলে বসে আছেন, পড়ছেন কিন্তু পড়ায় মন নেই। আপনার পড়া কখনেই আয়ত্ত হবে না। তাই পড়াশোনায় মন বসানোটা আবশ্যক। কয়েকটি টিপস অনুসরণ করা যেতে পারে।

আপনি কী আসলেই অমনোযোগী
আপনার পড়াশোনায় মন নেই মানে হচ্ছে আপনি অমনোযোগী। এ জন্য প্রথমেই নিজেকে প্রশ্ন করুন আমি কি সত্যিই অমনোযোগী? আপনার মন যদি সায় দেয় আমি অমনোযোগী নই, তো আপনি পড়ুন। একজন ছাত্র হিসেবে অমনোযোগটা খারাপ এটা যখন আপনি বুঝতে পাছেন। আপনি যখন মনোযোগী ছাত্র হিসেবে নিজেকে ভাবছেন তো মন দিয়েই পড়ুন।

কারণ চিহ্নিত করুন
ধরা যাক আপনার সত্যিই পড়ায় মন বসে না, আপনি অমনোযোগী। এ জন্য প্রথমেই কারণ চিহ্নিত করুন ‘কেন আপনার পড়ায় মন বসে না? কারণ থাকতেই পারে। সে কারণগুলো চিহ্নিত করে সমাধান করুন। এমন হতে পারে আপনার ঘুম আসে বা আপনার শারীরিক দুর্বলতা আছে। আপনি তার জন্য ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন। হতে পরে বেশিক্ষণ পড়তে পড়তে অমনোযোগী হয়ে যান, তখন একটু পর পর পাঁচ মিনিট বিশ্রাম নেন। হতে পারে একটা ঘটনায় আপনি মুষড়ে পড়েছেন, সে ঘটনা দ্রুত মিট করুন। ব্যস! এবার মনোযোগী হোন।

মন বসাতে প্রেষণা
প্রেষণা মানে অনুপ্রেরণা। আপনি যে পড়ছেন কেন পড়ছেন তা আপনার কাছে স্পষ্ট থাকা চাই। ধরা যাক আপনি পরীক্ষায় পাসের জন্য পড়ছেন, এটা আপনি জানেন কিন্তু পাস করলে কী হবে জানেন না। আপনাকে ভাবতে হবে ভালো পাস করলে আমি পুরস্কার পাবো, বড় ক্লাসে উঠব, বাহবা পাবো এভাবে সব পরীক্ষায় ভালো পাস করলে অনেক বড় হবো এ অনুপ্রেরণা সৃষ্টি করে পড়ুন, মন আসবে।

টার্গেট করে পড়ুন
পড়ায় মন বসাতে টার্গেট করে পড়ুন। সাময়িক টার্গেট। ধরুন কাল ক্লাসে একটা পরীক্ষা। রাতে পড়তে বসলেন সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলুন পরীক্ষায় আমি ভালো নাম্বার পাবোই, পড়তে শুরু করুন মন আসবে। কিংবা আপনি পড়তে চান না সবাই আপনাকে বকে। একটা জিদ ধরুন, এবার আমি সবাইকে দেখিয়ে দেবো, পরীক্ষায় ভালো পাস করলে, এ জিদই আপনার মনকে নিঃসন্দেহে পড়াশোনায় বসাবে। টার্গেটের ক্ষেত্রে কম করবেন কেন? বেশিই করুন।

ঝামেলা মুক্ত হয়ে পড়ুন
পড়তে বসতে নানা ঝামেলা মাথায় নিয়ে বসলে মন না বসারই কথা। আপনি সব ঝামেলাকে ঝেড়ে ফেলে, নিরিবিলি জায়গায় পড়ুন, তখন আপনার চিন্তা একটাই পড়া আর পড়া। আপনার ‘এক মন’ শুধুই পড়া। সুতরাং মন বসবে না কেন?

পড়ছেন যেহেতু মন দিয়েই পড়ুন
আপনি পড়ার জন্য সব প্রস্তুতি নিয়ে টেবিলে বসেছেন। এর অর্থ এখন পৃথিবীর সব কাজ আপনার কাছে অর্থহীন, আপনার একমাত্র কাজ পড়া। আপনি টেবিলে যতক্ষণ বসে আছেন পড়ার জন্য।  বসে আছেন। সুতরাং আপনি পড়ছেন যেহেতু অত্যন্ত নিবিষ্ট মনে পড়ুন। কারণ এখন নিবিষ্ট মনে না পড়ার তো কোনো মানে নেই।

এটা তো ঠিক আপনি মনোযোগ দিয়ে এক ঘণ্টা পড়লে আর অমনোযোগী হয়ে পাঁচ ঘণ্টা পড়লেও তা কাভার হয় না। আপনার মনোযোগ দিয়ে পড়ার মাধ্যমে যে পড়াটা আপনার মাথা ঢুকে গেছে তা আপনি কখনোই ভুলবেন না। আপনার গড়িমসি কিংবা পড়তে বসি বসি করে নিজেকেই ফাঁকি দিচ্ছেন। মনে রাখবেন কেউ জোর করে আপনাকে পড়াতে পারবে না আপনার নিজের তাগিদ যদি না থাকে।

ঘোষণা

আপনিও লিখুন


প্রিয় পাঠক, আপনিও লিখতে পারেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্সে। শিক্ষা, ক্যারিয়ার বা পেশা সম্পর্কে যে কোনো লেখা আমাদের কাছে পাঠিয়ে দিন। পাঠাতে পারেন অনুবাদ লেখাও। তবে সেক্ষেত্রে মূল উৎসটি অবশ্যই উল্লেখ করুন লেখার শেষে। লেখা পাঠাতে পারেন ইমেইলে অথবা ফেসবুক ইনবক্সে। ইমেইল : [email protected]
Previous articleথাইল্যান্ডে উচ্চশিক্ষা : জেনে নিন মৌলিক কিছু তথ্য
Next articleএফএম রেডিওতে স্মার্ট ক্যারিয়ার
গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার পাথরঘাটাতে। থাকেন ঢাকার সাভারে। পড়াশোনা করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে- সরকার ও রাজনীতি বিভাগ থেকে অনার্স, মাস্টার্স । পরে এলএলবি করেছেন একটা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। তাঁর লেখালেখি মূলত: ক্যারিয়ার বিষয়ে। তারই সূত্র ধরে সম্পাদনা ও প্রকাশ করছেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্স নামে এই ম্যাগাজিনটি। এছাড়া জিটিএফসি গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে কর্মরত। ভিডিও তৈরি ও সম্পাদনা, ওয়েব ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট, গ্রাফিক ডিজাইন এবং পাবলিক লেকচারের প্রতি আগ্রহ তাঁর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here