ত্রিশের পর পেশা পরিবর্তন কতটা সঠিক?

মো: বাকীবিল্লাহ::::

[dropcap]অ[/dropcap]ধিকাংশ মানুষই তার বর্তমান চাকরিতে বা পেশায় কামড়ে পড়ে থাকেন। যদিও তিনি পেশাটিকে মোটেই পছন্দ করেন না। এমনকি তিনি বুঝতে পারেন যে, অন্য কোনো কাজ করলে বর্তমানের চেয়ে তিনি অনেক ভালো করতেন।
এর সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে- তারা মনে করেন চাকরিটি ছেড়ে দিলে বা পেশা পরিবর্তন করলে তাকে ভয়াবহ কষ্টের ভেতর পড়তে হতে পারে। আবার অনেকে আছেন যারা নিজের কাজের ব্যাপারে মোটেই উৎসাহ অনুভব করেন না এবং এমন কাজের সাথে নিজেকে জড়িয়ে রাখেন যে কাজে তার মোটেও আগ্রহ নেই। যদিও এটা তার অল্প বয়সে ক্যারিয়ার পছন্দের ফল। কারণ একজন কিশোর বা তরুণের সাথে একজন অভিজ্ঞ ব্যক্তির চিন্তার পার্থক্য অবশ্যই থাকবে। সেজন্য বয়সকালে আপনার দরকার হতেই পারে পেশা পরিবর্তনের।

ত্রিশের পর পেশা পরিবর্তনের জন্য কী দরকার?

ধরুন আপনি একজন সাংবাদিক। আপনি ভালো লেখালিখি করতে পারেন। এখন আপনি যদি অন্য কোনো পেশায় যান তবে এই পারদর্শিতাটি আপনার ভালো কাজে দেবে। আপনি চাইলে আপনার নতুন পেশা সম্পর্কে বিভিন্ন জায়গায় লিখতে পারবেন। তার মানে আপনার আগের কাজ আপনাকে অবশ্যই অন্যদের চেয়ে এগিয়ে রাখবে। এখন আপনি যদি পছন্দের কোনো কাজে নিজেকে নিয়োজিত করেন তাহলে সেখানে আপনার ভালো করার এমনিতেই সম্ভাবনা আছে। তার ওপর লেখালিখির গুণটি আপনার জন্য প্লাস পয়েন্ট।

আসলে পেশার ব্যাপারে আমাদের মনের ভেতর একটা ধারণা পুশ করে দেয়া আছে। সেটা হচ্ছে আমাকে ডাক্তার হতে হবে ইঞ্জিনিয়ার হতে হবে -এ ধরনের কিছু একটা। কিন্তু সেটা আপনার ভালো লাগুক আর না লাগুক। এ ধরনের ক্ষেত্রে আপনি হয়তো ডাক্তার হয়ে গেলেন কিন্তু যেহেতু পেশার প্রতি আপনার তেমন কোনো ভালোবাসা নেই তাই এক্ষেত্রে আপনি খুব বেশি ভালো করতে পারবেন না। এটাই স্বাভাবিক। এখন আপনি যদি একটা বয়সে এসে পেশা পরিবর্তন করতে চান সেটা নির্ভয়ে করে ফেলতে পারেন। কারণ ওই ক্ষেত্রে আপনার ডাক্তারি পেশাটা হতে পারে আপনার জন্য একটা উপরি যোগ্যতা।

ত্রিশের পরে পেশা পরিবর্তনে কোন জিনিস আপনাকে বিরত রাখতে পারে?

আপনি যদি এমন ব্যক্তি হয়ে থাকেন যিনি পেশা পরিবর্তন করতে চান তার জন্য আসলে কোনো বিষয় নেই যা আপনাকে বিরত রাখতে পারে।
আয়ুস জেইন। মাই স্টাডি ডেস্টিনেশনের প্রতিষ্ঠাতা। তিনি মনে করেন- জীবনের কোনো পর্যায়েই পেশা পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ক্ষতিকর কিছু নেই। তবে আপনার একটি সুন্দর পরিকল্পনা থাকা উচিত এই পরিবর্তন ব্যবস্থাপনার জন্য।

সুশীল অরোরা। একজন ক্যারিয়ার কোচ। তিনি সব সময় স্বপ্ন পূরণের পথে চলাতে বিশ্বাস করেন। তার মতে, স্বপ্ন অসম্পূর্ণ রেখে জীবন-যাপন করার মতো কষ্টকর আর কিছু নেই। সেজন্য স্বপ্নপূরণ ও অর্থপূর্ণ জীবনের জন্য নিজের বয়স কোনো বাধা হতে পারে না।

জোনাহ পেরেটি, হাফিংটন পোস্ট-এর প্রতিষ্ঠাতা। বয়স যদি সব সময় স্বপ্ন পূরণের পথে প্রতিবন্ধকতা হতো তাহলে তিনি ভাইরাল নিউজ মিডিয়া বাজফিড ও হাফিংটন পোস্ট করতে পারতেন না। তিনি কিন্তু এগুলো ত্রিশ বছর বয়সের পরই করেছেন। এর আগে তিনি একটি মাধ্যমিক স্কুলে কম্পিউটার টিচার হিসেবে মাইক্রোসফট অফিস শেখাতেন।

শেষ কথা

আপনার যদি বয়স হয়ে ত্রিশের বেশি হয়ে যায় আর বর্তমান পেশা নিয়ে যদি আপনি সন্তুষ্ট না থাকেন, তাহলে আর দেরি নয়। একটি সুন্দর পরিকল্পনা করে এখনই নেমে পড়ুন আপনার ভালোলাগার কাজে। মনে রাখবেন আপনি যদি চেষ্টা করেন সৃষ্টিকর্তা আল্লাহ আপনার সাথে সাথেই থাকবেন।

লেখক : সম্পাদক, ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্স

[প্রিয় বন্ধুরা, ত্রিশের পর কি পেশা পরিবর্তন করা উচিত আপনাদের কি মনে হয়? জানান মন্তব্যে]

About সম্পাদক

মো: বাকীবিল্লাহ। গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার পাথরঘাটাতে। থাকেন ঢাকার মতিঝিলে। পড়াশোনা করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে -- সরকার ও রাজনীতি বিভাগ থেকে অনার্স, মাস্টার্স । পরে এলএলবি করেছেন একটা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। তাঁর লেখালেখি মূলত: ক্যারিয়ার বিষয়ে। তারই সূত্র ধরে সম্পাদনা করছেন ক্যারিয়ার ইনটেলিজেন্স নামে এই ম্যাগাজিনটি। এছাড়া জিটিএফসি গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে কর্মরত।

View all posts by সম্পাদক →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *