Home » চাকরি-প্রস্তুতি » জুডিশিয়াল সার্ভিসে নিয়োগ

জুডিশিয়াল সার্ভিসে নিয়োগ

বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশন। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার মাধ্যমে সহকারী জজ পদে নিয়োগ দেয়া হবে ৫০ জন। অনলাইনে আবেদনপত্র (BJSC Form-1) পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেয়ার শুরুর তারিখ ও সময় : আগামী ৫ এপ্রিল ২০১৮, সকাল ১০টা। অনলাইনে আবেদনপত্র পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেয়ার শেষ তারিখ ও সময় : আগামী ২৫ এপ্রিল ২০১৮, বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

পদের নাম : সহকারী জজ।
পদের সংখ্যা : ৫০টি। (বিধি অনুযায়ী পদ সংখ্যা হ্রাস বা বৃদ্ধি পেতে পারে।)
আবেদনের শিক্ষাগত যোগ্যতা : আইন বিষয়ে দ্বিতীয় শ্রেণীর স্নাতক বা দ্বিতীয় শ্রেণীর এলএলএম ডিগ্রি থাকলে আবেদন করা যাবে।
বয়সসীমা : ১ মার্চ ২০১৮ তারিখে বয়সসীমা অনধিক ৩২ বছর।
বেতন স্কেল : ৩০,৯৩৫-৬৪,৪৩০/- ও অন্যান্য সুবিধাদি।
অনলাইনে আবেদনপত্র পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেয়ার শুরুর তারিখ : আগামী ৫ এপ্রিল ২০১৮, সকাল ১০টা।
অনলাইনে আবেদনপত্র পূরণ ও পরীক্ষার ফি জমা দেয়ার শেষ তারিখ : আগামী ২৫ এপ্রিল ২০১৮, বিকেল ৫টা পর্যন্ত। দরকারি তথ্যের জন্য ভিজিট করতে পারেন www.bjsc.gov.bd

প্রিলিমিনারি পরীক্ষা
সহকারী জজ পদে অংশ নিতে সব প্রার্থীকে ১০০ নম্বরের প্রিলিমিনারি/প্রাথমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। এমসিকিউ পদ্ধতিতে ওই পরীক্ষায় মোট ১০০টি প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি এমসিকিউ প্রশ্নে নম্বর থাকবে ১। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা হবে। কোটার সুবিধাভোগী প্রার্থীসহ সব প্রার্থীকেই লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণের প্রাক-যোগ্যতা হিসেবে প্রিলিমিনারি/প্রাথমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। প্রাথমিক পরীক্ষায় সাধারণ বাংলা, সাধারণ ইংরেজি, সাধারণ গণিত, দৈনন্দিন বিজ্ঞান, বুদ্ধিমত্তা, বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি এবং আইন বিষয় থেকে প্রশ্ন থাকবে। প্রাথমিক বা প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় পাস নম্বর ৫০। প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীরাই কেবল লিখিত পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।

লিখিত পরীক্ষা
বিজেএস পরীক্ষায় ১০০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। যার মধ্যে বাংলা, ইংরেজি, গণিত, দৈনন্দিন বিজ্ঞান, বাংলাদেশ বিষয়াবলি ও আন্তর্জাতিক বিষয় ও আইনের বিষয়ের ওপর লিখিত পরীক্ষা দিতে হবে। এর মধ্যে দেওয়ানি-সংক্রান্ত আইন, ফৌজদারি-সংক্রান্ত আইন, সংবিধান-সংক্রান্ত বিষয়, মুসলিম ও পারিবারিক আইন-সংক্রান্ত বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। লিখিত পরীক্ষায় গড়ে ৫০ শতাংশ নম্বর পেতে হবে। তবে কোনো পরীক্ষার্থী কোনো বিষয়ে ৩০ শতাংশের কম নম্বর পেলে ওই প্রার্থীকে লিখিত পরীক্ষায় অকৃতকার্য ধরা হবে।

প্রস্তুতি নিতে হবে এখন থেকে
লিখিত পরীক্ষায় ভালো করতে প্রার্থীকে অবশ্যই আইন-সংক্রান্ত বিষয়গুলো সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখতে হবে। এ জন্য মনোযোগসহকারে অষ্টম, নবম-দশম থেকে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণীর পাঠ্যবই পড়বেন। বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে ভালো করতে হলে পাঠ্যবইয়ের পাশাপাশি পড়তে হবে পত্রিকা। আইন অংশে ভালো করতে পড়তে হবে সম্মান শ্রেণীর আইন সম্পর্কিত বই। বাংলা ও ইংরেজি বিষয়ের লিখিত পরীক্ষার জন্য বাংলা ও ইংরেজি পত্রিকার সম্পাদকীয় ও তথ্যসমৃদ্ধ ফিচার, প্রতিবেদন পড়তে হবে। এ ছাড়া অনুশীলন করতে পারেন বিগত সহকারী জজ নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন। গণিত ও বিজ্ঞানের প্রশ্ন তুলনামূলক কঠিন হয়। এ জন্য নিয়মিত অষ্টম থেকে নবম- দশম শ্রেণীর গণিত বই থেকে অঙ্কের সমাধান চর্চা করবেন। পারিবারিক আইন বিষয়ে ফারায়েজের ওপর প্রশ্ন আসতে পারে।

মৌখিক পরীক্ষা
লিখিত পরীক্ষায় পাস করলে প্রার্থীদের ডাকা হবে মৌখিক পরীক্ষায়। এ জন্য প্রার্থীদের আত্মবিশ্বাসী হতে হবে। পরীক্ষায় ব্যক্তিগত ও আইনি বিষয়ে প্রশ্ন করা হবে। ভাইভা পরীক্ষার জন্য প্রতিটি প্রশ্ন ভালোভাবে শুনে প্রশ্নকর্তার চাহিদা অনুযায়ী উত্তর দেবেন। ভাইভায় নিজেকে উপস্থাপন করতে হবে শালীন ও রুচিশীলভাবে। ১০০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৫০।

প্রাথমিক, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার তারিখ ও সময়সূচি
প্রাথমিক, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার তারিখ ও সময়সূচি কমিশনের ওয়েবসাইট ও দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি মারফত জানানো হবে।

আবেদনপত্র পূরণ
১২ শ’ বিজেএস পরীক্ষার আবেদনপত্র (BJSC Form-1) অন লাইনে পূরণ করে আবেদন করতে হবে। ১২ শ’ বিজেএস পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি ও আবেদনপত্র পূরণের নিয়মাবলি সংবলিত User Guide ও BJSC Form-1-এর নমুনা কপি কমিশনের ওয়েবসাইটে ৫ এপ্রিল ২০১৮ তারিখ থেকে E-Application বাটনে ক্লিক করলে পাওয়া যাবে।

পরীক্ষার ফি প্রদান
সফলভাবে অনলাইনে আবেদনটি জমা হওয়ার পর টেলিটক মোবাইল ফোন ব্যবহার করে নিবন্ধন ফি বাবদ ১২০০ টাকা জমা দিতে হবে।

প্রবেশপত্র সংগ্রহ
আবেদনকারী ইউজার আইডি ব্যবহার করে ২৯ এপ্রিল ২০১৮ তারিখ পূর্বাহ্ণ ১০টা থেকে কমিশনের ওয়েবসাইট www.bjsc.gov.bd থেকে প্রবেশপত্রের প্রিন্ট নিতে পারবেন।

Career Intelligence on Youtube